| | মঙ্গলবার, ৩রা কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১২ই রবিউল আউয়াল, ১৪৪৩ হিজরি |

গণধর্ষণের শিকার কিশোরী, গ্রেফতার ৩

প্রকাশিতঃ ৯:৪২ অপরাহ্ণ | জুন ১৪, ২০২১

somoy news

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজশাহীর বাঘায় এক কিশোরীকে গণধর্ষণের অভিযোগে তিন যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। রোববার দিবাগত রাতে পুলিশ তাদের গ্রেফার করে। ভুক্তভোগী কিশোরীকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালেরর ওসিসিতে পরীক্ষার জন্য প্রেরণ করা হয়েছে।

অভিযোগে জানা গেছে, প্রেমের সম্পর্কের কারণে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে বাঘা উপজেলার চন্ডিপুর গ্রামের মানিক হোসেনের ছেলে সুমন হোসেন ওরফে আলামিন (২২) নামের এক যুবক ১৪ বছরের কিশোরী প্রেমিকাকে শনিবার সন্ধ্যায় ফোন করে ডেকে নেয়। তার কথা অনুযায়ী কিশোরী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স চত্বরে আসে এবং তাদের মধ্যে সাক্ষাত হয়। কিছক্ষণ পর প্রেমিক সুমন হোসেন ওরফে আলামিন একটা কাজ আছে বলে তার তিন বন্ধুর কাছে প্রেমিকাকে রেখে চলে যায়। তারপর সুমন আর ফিরে আসেনি। একপর্যায়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্রের পেছনে রাতভর কিশোরীকে গণধর্ষণ করে তারা।

এ ঘটনায় রোববার রাতে কিশোরী বাদী হয়ে বাঘা থানায় ৪ জনকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করে। এই মামলার তিনজন আসামিকে পুলিশ গ্রেফতার করে।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন-উত্তর মিলিক বাঘা গ্রামের এমদাদ আলীর ছেলে তারেক হোসেন (২৫), মিলিক বাঘা গ্রামের সাদেক আলীর ছেলে আরিফ হোসেন ওরুফে নাসির (২৩), বাজুবাঘা নতুন পাড়া গ্রামের নওসেন আলীর ছেলে সবুজ আলী (২১)। তবে এই মামলার মুল আসামি সুমন হোসেন ওরফে আলামিন পলাতক রয়েছে।

এ বিষয়ে বাঘা থানার ওসি নজরুল ইসলাম বলেন, অভিযোগ পাওয়ার সাথে সাথে তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। একজন পলাতক আছে। তাকেও গ্রেফতার অভিযান অব্যাহত রয়েছে। গ্রেফতারকৃতদের সোমবার দুপুরে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। কিশোরীকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালেরর ওসিসিতে পরীক্ষার জন্য প্রেরণ করা হয়েছে।

Matched Content

সময় নিউজ ডট নেট এর কোনো সংবাদ,তথ্য,ছবি,আলোকচত্রি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে র্পূব অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সর্ম্পূণ বেআইনি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যে কোন কমেন্সের জন্য কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।


Shares