| | বুধবার, ৮ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ৮ই রমজান, ১৪৪২ হিজরি |

সূর্যমুখী ফুল চাষে ঝুঁকছেন কৃষকরা

প্রকাশিতঃ ২:১৪ অপরাহ্ণ | এপ্রিল ০৪, ২০২১

somoy news

অনলাইন ডেস্ক : সূর্যমুখী যে শুধু একটি ফুলই নয়, এটি যে একটি তেল বীজ জাতীয় ফসল এবং এ থেকে উৎপাদিত তেল স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী তা এ অঞ্চলের মানুষ আগে না জানলেও ইদানিংকালে জানতে পারছে। এ জাতীয় ফসলের ব্যাপক উৎপাদনের লক্ষ্যে গোপালগঞ্জ কৃষি বিভাগ কৃষকদের উদ্বুদ্ধ করতে শুরু করেছে।

আর তাই তো সরকারি ভাবে বীজ, সারসহ আনুসাংগিক সব পরামর্শ দিয়ে এই সূর্যমুখী চাষে কৃষকদের উদ্বুদ্ধ করে যাচ্ছে কৃষি বিভাগ। এ বছর জেলায় ৫৮ হেক্টর জমিতে সূর্যমুখী ফুলের চাষ হয়েছে। আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় সূর্যমুখী ফুলের ফলন ভাল হওয়ায় সূর্যমুখী যেমন সূর্যের দিকে তাকিয়ে হাসছে, তেমনি ফলন ভাল হওয়ায় কৃষকের মুখেও দেখা দিয়েছে হাসি।

চলতি বছর জেলায় ৬০ হেক্টর জমিতে সূর্যমুখী ফুলের আবাদের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হলেও অর্জিত হয়েছে ৫৮ হেক্টর জমিতে। প্রতি বিঘা জমিতে সূর্যমুখী ফুল থেকে ৮ থেকে ১০ মণ তৈল বীজ উৎপাদন হয়। পরে সেই বীজ থেকে উৎপাদন করা হচ্ছে ভোজ্য তেল। অন্যান্য তেল থেকে এ তেলে পুষ্টিগুণ বেশি থাকায় বাজারে রয়েছে ব্যাপক চাহিদ। প্রতি কেজি তেল দু’শ থেকে আড়াইশ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। এ আয় থেকে সংসার চালানোর পাশাপাশি অনেক কৃষক তাদের সারা বছরের খাবার তেল সংগ্রহ করে রাখছেন।টুঙ্গিপাড়ার নিলফা গ্রামের জুয়েল শেখ, রহিম শেখ ও রহমত আলি জানান, কৃষকদের শুধু জমিই। বীজ, সার সব কৃষি অফিস থেকে বিনা পয়সায় দেয়া হয়েছে। তারা শুধু তাদের জমিতে চাষাবাদ করেছেন। ফলন ভালো হওয়ায় তারা যেমন খুশি, আবার অনেকেই এমন ভাল ফলন দেখে আগামীতে তাদের নিজেদের জমিতে চাষাবাদের আগ্রহ দেখিয়েছেন।

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক অরবিন্দু কুমার রায় জানান, লাভজনক এ ফুল চাষে কৃষক ও বেকার যুবকদের মধ্যে আগ্রহ সৃষ্টি করতে আমরা এক হাজার ৫শ” কৃষককে দেড় হাজার বিঘা জমিতে চাষাবাদের জন্য বিনামূল্যে বীজ ও সার দেয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

টুঙ্গিপাড়ার বর্নি এলাকায় গেলে দেখা যায়, মাঠের পর মাঠ সূর্যমুখী ফুল ফুটে রয়েছে। এই ফুলের তেল শরীরের জন্য খুব উপকারী। এই তেল জাতীয় শষ্যের যদি আবাদ বাড়ানো যায় তাহলে আমাদের তেল আমদানী কম করতে হবে।

শুধু লাভ বা খাবার তেলের যোগানই নয়, সূর্যমুখী ফুলের হলুদ আভারণ আকৃষ্ট করে তোলে প্রকৃতি প্রেমীদের। প্রতিদিনই এর সৌন্দর্য উপভোগ করতে ক্ষেতগুলোতে ভীড় করছেন অনেকেই। সারা জেলায় সূর্যমুখী ফুলের চাষ ছড়িয়ে পড়লে অন্যান্য ভোজ্য তেলের উপর চাপ কমবে বলে মনে করছে কৃষি বিভাগ।

Matched Content

সময় নিউজ ডট নেট এর কোনো সংবাদ,তথ্য,ছবি,আলোকচত্রি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে র্পূব অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সর্ম্পূণ বেআইনি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যে কোন কমেন্সের জন্য কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।


Shares